Categories


মন ও মানুষ-৩ (হার্ডকভার)

জীবনে বেঁচে থাকতে হলে দুঃখ-কষ্ট, সমস্যা, দ্বন্দ্ব, উদ্বেগ, হতাশাসহ নানাবিধ যন্ত্রণার মধ্য দিয়ে আমাদের যেতে হয়। এসব কোনো রোগ নয়, তবে জীবনের বিড়ম্বনা। এই বইয়ে এসব দৈনন্দিন কষ্ট, হয়রানি ও বিড়ম্বনাকে সর্বাধুনিক বিজ্ঞানসম্মত কৌশল প্রয়োগ করে নিজেই নিজেকে কিভাবে কাউন্সিলিং/ সাইকোথেরাপি দিবেন, সে ব্যাপারে সহজবোধ্য টিপস্‌গুলো দেওয়া হয়েছে। নানাবিধ আবেগগত, আচরণগত, পেশাগত, পারিবারিক ও সামাজিক সমস্যা আমাদেরকে ঘিরে থাকে। জীবনের গুণগত মান আরো উন্নত হতে পারতো, আমরা আরেকটু সুখি, সফল, সম্মানিত ও তৃপ্ত জীবন-যাপন করতে পারতাম। বিশেষজ্ঞের চেম্বারে গিয়ে সাইকোথেরাপি/ কাউন্সিলিং করার সময়-সুযোগ আমাদের সব সময় হয়ে ওঠে না। বিশেষজ্ঞদের সেই সব কাউন্সিলিং-এর সার-সংক্ষেপ এই বইতে বিবৃত করার চেষ্টা করা হয়েছে যাতে, ঘরে বসে পরিবারের প্রতিটি সদস্য তাদের স্ব-স্ব সমস্যা উৎকণ্ঠাগুলোকে নিরসন করে, জীবনের সঙ্গে ভালোভাবে খাপ-খাওয়ানোর পদ্ধতিগুলো রপ্ত করে আত্মনির্মাণে সফল ব্যক্তিত্বগঠনে সক্ষম হন। সাধারণ মানুষ ছাড়ও সকল ধরনের ডাক্তার, মেডিকেলের ছাত্র-ছাত্রী, মনোবিজ্ঞানের ছাত্র-ছাত্রী, এনজিও কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট পেশার লোকদের জন্য এটি একটি রেফারেন্স বই হিসেবে ব্যবহার করা যাবে। এই বইয়ের কোনোকিছুই আমার ব্যক্তিগত আবিষ্কার নয় বরং শ্রেষ্ঠ চিন্তাবিদ, গবেষক ও বিজ্ঞানীদের গবেষণার ফসল, যা আমি আপনাদের হাতে তুলে দিতে চেয়েছি।


বাংলা ভাষার উদ্ভব ও অন্যান্য

বাংলা ভাষার জন্ম কোথা থেকে? প্রায় সবাই বলবেন ‘সংস্কৃত ভাষা থেকে’। কিন্তু কথাটা সঠিক নয়। বাংলা ভাষার জন্ম কোথা থেকে — এ প্রশ্নের উত্তর মিলবে এই বইয়ে। কেবল তা-ই নয়, প্রাচীনকাল থেকে বিবর্তনের মাধ্যমে কীভাবে বাংলা ভাষা আজকের চেহারা লাভ করেছে, তা নিয়েও আলোচনা আছে এ গ্রন্থে। এই বিবর্তনের পথে নানা চড়াই-উতরাই অতিক্রম করতে হয়েছে তাকে। নানা রাজনৈতিক প্রভাব পড়েছে তার ওপর। বিদেশের লোকেরা এসে আমাদের ভাষায় তাদের ছাপ রেখে গেছে। বাহান্নর ভাষা আন্দোলন এবং স্বাধীন বাংলাদেশের উদ্ভব উপস্থিত হয়েছে একই সঙ্গে বাংলা ভাষাকে সমৃদ্ধির পথে নিয়ে যাওয়ার এবং বিভক্ত করার সম্ভাবনা নিয়ে। এ নিয়ে আলোচনা আছে এই গ্রন্থে।